Friday, February 5, 2021

CAPTCHA থেকে reCAPTCHA হওয়ার গল্প

Captcha শব্দটি খুব পরিচিত তাই না। পরিচিত হবেই না কেন,আমার মতো তোমরাও তো সারাদিন ইন্টারনেটে ঘাঁটাঘাঁটি করো। হুট করে এমন একটা পেজ চলে আসে যেটা আমাদের এক্সেস করতে হলে নিজেকে রোবট নয় বরং মানুষ হিসেবে প্রমাণ করতে হয়।আর তার জন্য বিশেষ পদ্ধতিতে স্ক্রিনে কিছু লেখা থাকে যা দেখে দেখে আমাদেরও লিখতে হয়। নিচের চিত্রটি দেখো 'smwm' নামে একটি লেখা আছে। লেখাটি এমন ভাবে লেখা আছে যা একজন মানুষ খুব সহজেই অনুমান করতে পারবে কিন্তু একটা প্রোগ্রাম বা রোবট তা করতে পারবে না।মানুষ এবং রোবটকে আলাদা করার এই পদ্ধতিকে বলে ক্যাপচা।

Captcha
                    'smwm' লেখা একটি ক্যাপচা

Captcha কোনো ইংরেজি বা ল্যাটিন কোনো শব্দ নয়। বরং কয়েকটি শব্দ নিয়ে গঠিত একটি বাক্যের শর্টফর্ম।যাকে বলা হয় অ্যাব্রিভিয়েশন। যাইহোক Captcha এর পূর্ণরুপ হলো 'Completely Automated Public Turing test to tell Computers and Humans Apart'.যার বাংলা অর্থ দাঁড়ায় 'সম্পূর্ণ স্বয়ংক্রিয়ভাবে মানুষ এবং কম্পিউটারগুলোর মধ্যে পার্থক্য যাচাই করার প্রক্রিয়া'।ক্যাপচার সূচনা হয় Luis von Ahn, Manuel Blum, Nicholas J. Hopper এবং John Langford এর হাত ধরে।ক্যাপচার প্রথম আবিষ্কার হয় ১৯৯৭ সালে। হ্যাকার ও সাইবার হামলাকারীদের থেকে সাইট বা অ্যাকাউন্টগুলোকে নিরাপদ রাখতে মূলত ক্যাপচার উদ্ভব হয়। কারণ হ্যাকার ও সাইবার হামলাকারীরা এমন সব ইন্টিলিজেন্স প্রোগ্রাম তৈরি করে থাকে যা পেজটি অ্যাক্সেস করার জন্য একের পর এক পাসওয়ার্ড দিয়ে চেষ্টা করতে থাকে।



অবশ্য আমাদের এই তথ্য প্রযুক্তির যুগে ক্যাপচার উন্নতির সাথে সাথে সেই প্রোগ্রামগুলোও উন্নত হচ্ছে।ফলে ইন্টারনেটের প্রথম দিকে উদ্ভব এই ক্যাপচাগুলো অনেক ক্ষেত্রেই নিরাপদ নয়।তাই নতুন নতুন ক্যাপচা আবিষ্কার হয়েছে। তবে শব্দ শুনে লেখার জন্য একটি ক্যাপচা আবিষ্কার হয়েছে যা তুলনামূলক ভাবে নিরাপদ।

reCAPTCHA
                             গুগলের রি-ক্যাপচা প্রযুক্তি

আশার বিষয় হচ্ছে সর্ববৃহৎ টেক জায়েন্ট কোম্পানি গুগল অন্যান্য প্রযুক্তির মতোই ক্যাপচা প্রযুক্তির উন্নতি সাধন করতে সক্ষম হয়েছে।তারা এই নব উদ্ভাবিত ক্যাপচাটির নাম দিয়েছে (reCAPTCHA) রি-ক্যাপচা।রি-ক্যাপচা ডেভলপমেন্টের সময় তারা ভেবেছিল এমন একটি নিরাপত্তা ব্যবস্থা আবিষ্কার করা দরকার যা মানুষের জন্য হবে খুবই সহজ আর একটি রোবট বা প্রোগ্রামের জন্য হবে খুবই কঠিন।এই ক্যাপচা প্রক্রিয়ায় একটি বিশেষ নির্দেশনা দেওয়া হয় যা অনুধাবন করে নির্দেশনা সম্পর্কিত কয়েকটি ছবি মার্ক করে ভেরিফাই করতে হয়। গুগলের এই আর্টিফিশিয়াল ইন্টিলিজেন্স প্রযুক্তি খুবই জনপ্রিয়।তার কারণ এটি অন্যান্য ক্যাপচার তুলনায় অনেক শক্তিশালী ও নিরাপদ।


reCAPTCHA


শুধু এটুকু বলতে পারি এই ক্যাপচা ঠেকানোর জন্য হয়তো শক্তিশালী প্রোগ্রাম তৈরি করা যেতে পারে কিন্তু অদূর ভবিষ্যতে এর থেকেও শক্তিশালী ক্যাপচার উদ্ভব হবে যা আমাদের নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে আরো শক্তিশালী করবে।

প্রোগ্রামিং ভালোবাসি আর ধর্মকে সাথে করে বাঁচতে চাই।অন্যায় আর অধর্মকে ঘৃণা করি।বইয়ের সাথে আমার প্রচুর ভাব। আমার প্রফেশনাল পরিচয় হলো "কম্পিউটারের পোকা"।

0 Comments: