Thursday, December 24, 2020

ব্লক করা ওয়েব সাইটগুলো নিরাপদে ব্রাউজ করবো টোর দিয়ে

Tor


রিসার্চ পেপার ডাউনলোড করার ওয়েবসাইট সাই-হাব(sci-hub.org) ডোমেইন হঠাৎ করে ব্লক হয়ে যাওয়ায় মুরাদ খুব চিন্তিত ।এবার সে আন্ডার গ্রাজুয়েট এর ছাত্র।থিসিস লিখবে।তাই থিসিস লেখার আগে তার থিসিসের টপিকসের ওপর কিছু রিসার্চ বা একাডেমিক পেপার ডাউনলোড করে সে পেপারগুলো দেখতে চায়।যাতে সে জানতে পারে কী ভাবে রিসার্চ পেপার লিখতে হয় এবং তার টপিকের রিসার্চ পেপার গুলো কেমন। তার এক বন্ধুর কাছ থেকে জানতে পারল সাই-হাব নামে একটি ওয়েবসাইট থেকে বিনামূল্যে যেকোন ধরনের একাডেমিক পেপার ডাউনলোড করা যায় এবং সেই ওয়েবসাইটে ৬৪.৫ মিলিয়নের অধিক রিসার্চ পেপার রয়েছে। মুরাদ তাই খুব খুশি। কিন্তু যখন ওয়েবসাইটটি ব্রাউজ করতে গেল।দেখল ডোমেইনটি ব্লক করায় ওয়েবসাইটটি দেখা যাচ্ছে না।


জানি এরকম হাজারো ঘটনা আছে। আমাদের জরুরি বিভিন্ন ওয়েবসাইট ব্লক থাকায় অনেক তথ্যই আমরা জানতে পারি না।তাই আজকে আমি এমন একটি ব্রাউজারের কথা বলব,যেই ব্রাউজার দিয়ে আমরা খুব সহজেই আইপি এড্রেস (Internet protocol address) গোপন রেখে ব্লক করা ওয়েবসাইটগুলো ব্রাউজ করতে পারবো। মুরাদ এখন খুব খুশি। কারণ সে তোমাদের আগেই বিশ্বখ্যাত ব্রাউজারটির নাম শুনে ফেলেছে ।

ব্রাউজারটির নাম TOR Browser. গুগল প্লে স্টোরে TOR Browser লিখে সার্চ দিলে অ্যাপসটি পাওয়া যাবে। সেখান থেকে আমরা এই ব্রাউজারটি ইন্সটল করে ফেলব। এছাড়াও https://www.torproject.org/ এই ওয়েবসাইট থেকে বিনামূল্যে ডাউনলোড করা যাবে।এটি বর্তমানে উইন্ডোজ, অ্যান্ড্রোয়েড, লিনাক্স ও ম্যাক ওএস অপারেটিং সিস্টেমের জন্য উন্মুক্ত।এক বছরে TOR বিশ্বব্যাপী দৈনিক ৫০০,০ থেকে ৪০ লক্ষেরও বেশি ব্যবহারকারীতে উন্নীত হয়েছে, যা এই পথে ক্রমবর্ধমান গণ বিতর্কের সৃষ্টি করেছে। মূলত এই ব্রাউজারটি ব্যাবহার করা হয় ডার্ক ওয়েবে প্রবেশ করার জন্য।ডার্ক ওয়েব সম্পর্কিত কিছু জানতে চাইলে ইন্টারনেট তো আছেই।সার্চ করে ডার্ক ওয়েব সম্পর্কিত আর্টিকেল গুলো পড়ে ফেল।

How Tor works



এবার ফিরে আসি মূল বিষয়ে। TOR Browser হলো একধরনের ব্রাউজার।যেই ব্রাউজার দিয়ে সার্ভারে থাকা সকল ওয়েবসাইট ব্রাউজ করা সম্ভব।তাই অপরাধীদের জন্য এই ব্রাউজারটি খুবই প্রিয়। অপরাধ জগতের সকল ওয়েবসাইট অস্ত্র কেনা থেকে শুরু করে মানুষ খুনের অর্ডার দেওয়ার ওয়েবসাইটও ব্রাউজ করা যায় এই ব্রাউজারের মাধ্যমে। সবচেয়ে মজার কথা হলো এই ব্রাউজারের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই।তাই নিশ্চিন্তে আইপি অ্যাড্রেস(internet protocol address) গোপন রেখে প্রবেশ করা যায় এই ব্রাউজারে।অপরাধীরাও তাই শান্তিতে ঘুমাতে পারে।
কিন্তু আমার এই আর্টিকেলে আমরা সবাই চাইবো আমরা যেন কোনো অনৈতিক কাজ হাসিলের জন্য এই ব্রাউজারটি ব্যাবহার না করি।


এখন আমরা TOR Browser সম্পর্কে বিস্তারিত জানব।TOR এর পূর্ণরূপ হলো The Onion RouterTOR হলো ব্যক্তিগত গোপনীয়তা রক্ষার্থে পরিচয় গোপন করার কাজে ব্যবহৃত এক প্রকারের ব্রাউজিং সফটওয়ার।নিজেকে ট্র্যাকিং, নজরদারি এবং সেন্সরশিপ থেকে রক্ষা করতে এই ব্রাউজারটি ব্যাবহার করা হয়।

TOR browser টি নিয়ন্ত্রণ ও উন্নয়ন করছে দ্য টর প্রজেক্ট ইনকর্পোরেটেড। সবচেয়ে মজার ব্যাপার হলো এই প্রতিষ্ঠানটির লোগোটির ডিজাইন তৈরি করা হয়েছে পেঁয়াজ দিয়ে।TOR ব্রাউজারটি সি , পাইথন ও রাস্ট প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ ব্যাবহার করে তৈরি করা হয়েছে।এটির প্রাথমিক সংস্করণ বের হয় ২০ সেপ্টেম্বর ২০০২ সালে। 

Tor



TOR তৈরি করা হয় প্রথমে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনীর গবেষণাগারে।পরবর্তিতে ২০০৪ সালে এটি Electronic Frontier Foundation(EFF) এর প্রকল্পে পরিণত হয়। ইএফএফ নভেম্বর ২০০৫ পর্যন্ত TOR- এর আর্থিক পৃষ্ঠপোষকতা করে, এবং এখনও TOR প্রজেক্টের জন্য ওয়েব হোস্টিং প্রদান করে থাকে।মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং যুক্তরাজ্যের গুপ্তচরদের নজরদারি কৌশল সম্পর্কে প্রকাশের পর থেকে TOR সমালোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে, যার বিরুদ্ধে পেডোফিল, মাদক ব্যবসায়ী এবং অস্ত্র ব্যবসায়ীদের বিপজ্জনক "ডার্ক ওয়েব" সুবিধা প্রদানের অভিযোগ আনা হয়েছে।


ডার্ক ওয়েবের সকল ওয়েবসাইট এখানে ব্রাউজ করা যায়।ডার্ক ওয়েবের ওয়েবসাইট গুলোর ডোমেইন হয়ে থাকে সাধারণত .onion যেমনঃ TOR এর ডার্ক ওয়েবসাইট expyuzz4wqqyqhjn.onion, রিসার্চ পেপার ডাউনলোড করার ওয়েবসাইট সাই-হাব এর ডার্ক ওয়েবসাইট scihub22266oqcxt.onion এছাড়াও যেকোন ধরনের ওয়েবসাইট(ব্লককরা ওয়েবসাইট সহ) এখানে ব্রাউজ করা সম্ভব।TOR BrowserDuckDuckGo নামের সার্চ ইঞ্জিন ব্যাবহার করা হয়।TOR Browser ইন্সটল করা শেষে কিছু পদক্ষেপ অনুসরণ করে ব্রাউজারটি সেট আপ করতে হয়। তুমি চাইলে ব্রাউজারটি ডিফল্ট ব্রাউজার হিসেবে সেট আপ করতে পারবে।

Tor browser

ব্রাউজারটি নিরাপদ হওয়ায় তুমি যেকোন ধরনের ওয়েবসাইট ব্রাউজ করতে পারবে। তাই অপরাধী দল নিজেদের পরিচয় ঢাকার জন্য এই ব্রাউজারটি ব্যাবহার করে। কিন্তু নৈতিকতা বলতে একটা কথা আছে।তাই এমন কিছু করো না যাতে সমাজের কোন ক্ষতি হয়।মনে রাখবে ভালোবাসার ভিত্তি হলো নৈতিকতা। মুরাদ এতক্ষণে তার প্রয়োজনীয় সকল রিসার্চ পেপার ডাউনলোড করে ফেলেছে। তাহলে দেরী কেন? তুমিও এক্ষুনি ব্রাউজারটি ইন্সটল করে ফেলো।

প্রোগ্রামিং ভালোবাসি আর ধর্মকে সাথে করে বাঁচতে চাই।অন্যায় আর অধর্মকে ঘৃণা করি।বইয়ের সাথে আমার প্রচুর ভাব। আমার প্রফেশনাল পরিচয় হলো "কম্পিউটারের পোকা"।

2 comments: